ঢাকা বৃহস্পতিবার | ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মারুফুল হক
৮ এপ্রিল, ২০১৯ | ১১:৫০

সারাবেলা সেরা লোকশিল্পী ১৪২৫ প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত

tesst

গাইবান্ধায় ৪র্থ বারের মত ভিন্ন আঙ্গিকে অনুষ্ঠিত হল সারাবেলা সেরা লোকশিল্পী ১৪২৫ শীর্ষক প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় পর্ব। ‘কন্ঠে ছড়াও শেকড়ের গান’-এ শ্লোগানে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সহযোগিতায় এসকেএস ফাউন্ডেশনের আয়োজনে সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচির আওতায় আজ (০৭ এপ্রিল ২০১৯, রোববার) বিকেল ৩টায় প্রথম পর্ব থেকে বাছাইকৃত ২০ জন শিল্পীকে নিয়ে এসকেএস ইন-এর ব্যাংকুয়েট হলে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রতিযোগিতা। বাছাইকৃত শিল্পীরা ভাওয়াইয়া, পল্লীগীতি, লালন শাহ্, হাছন রাজা ও ভাটিয়ালি গান পরিবেশন করেন। এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কর্মসূচীর ফোকাল পার্সন ও সারাবেলার সিনিয়র স্টেশন ম্যানেজার মাহফুজ ফারুক। অনুষ্ঠানটির প্রথম অংশ সঞ্চালনা করেন এসকেএস ফাউন্ডেশনের সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচির প্রোগ্রাম অফিসার মো. মারুফুল হক। এরপর দ্বিতীয় অংশ সঞ্চালনা করেন সারাবেলার স্টেশন ম্যানেজার শান্তা সূত্রধর। বিচারকদের রায় অনুযায়ী সেরা ১০ জনকে চূড়ান্ত পর্বের জন্য বাছাই করা হয়। সেরা ১০ শিল্পী হলেন- মো. রেজাউল করিম, মো. সালাম মেহেদি, শ্রী সুব্রত কুমার দাস, কুমারী দিপ্তী রাণী, মো. রুবেল মিয়া, মোছা. আঞ্জুমান আরা, মোছা. খাদিজা আক্তার সুমি, মো. আসাদুজ্জামান সজিব, মো. মোস্তফা কামাল, মোছা. মাহফুজা আক্তার প্রিয়া। আগামী ১৪ এপ্রিল এই ১০ জনকে নিয়ে এসকেএস ইন্ এ অনুষ্ঠিত হবে এ প্রতিযোগিতার চুড়ান্ত পর্ব।

প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকারী পুরষ্কার হিসেবে ৩০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় স্থান অধিকারী ১৫ হাজার, তৃতীয় স্থান অধিকারীকে ১০ হাজার টাকার প্রাইজমানিসহ সেরা ১০ শিল্পীকে সনদপত্র ও ক্রেস্ট প্রদান করা হবে। একইসাথে তাদের রেডিও সারাবেলার তালিকাভুক্ত শিল্পী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এর আগে গত ৩১ মার্চ নিবন্ধিত ৬০ জন শিল্পীকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় সারাবেলা সেরা লোকশিল্পী ১৪২৫ শীর্ষক প্রতিযোগিতার প্রথম পর্ব।

বিষয়সমূহঃ