ঢাকা শুক্রবার | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আগামী নিউজ ডেস্ক
২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ০৮:৫৪

ঢাকায় বিওয়াইএলসি ইয়ুথ কার্নিভালে সাইবার নেতৃত্বের ক্যাম্পেইন

tesst সাইবার নেতৃত্ববিষয়ক ক্যাম্পেইনের স্টল পরিদর্শনে জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখোপাধ্যায়

ঢাকা, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৯: বিওয়াইএলসি এর প্রথম ইয়ুথ কার্নিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি শুক্রবার মোহাম্মদপুরে সরকারি শারীরিক শিক্ষা কলেজে অনুষ্ঠিত হয়। কার্নিভালটি বিওয়াইএলসির দশম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসাবে আয়োজিত হয়। যুবসমাজকে প্রভাবিত করে এমন ইস্যুতে দু’দিনের ইন্টারেক্টিভ সেশন, প্রদর্শনী এবং কথোপকথনের জন্য খ্যাতিমান স্পিকার এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে ৭০০০ এরও বেশি তরুণ একত্রিত হয়েছিলেন। এতে সাইবার সচেতনতায় নেতৃত্ব তৈরিতে ক্যাম্পেইন করছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয় এর মাননীয় সচিব মো: আক্তার হোসেন, তিনি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ (এসডিজি) সম্পর্কে যুবসমাজের সচেতনতা বৃদ্ধিতে বিওয়াইএলসির এমন  উদ্যোগের প্রশংসা করে তিনি বলেন, “বিওয়াইএলসি আয়োজিত ইয়ুথ কার্নিভালের মতো উদ্যোগ আশা জাগিয়ে তোলে এবং তরুনদেরকে এমন দিকনির্দেশনা প্রদান করে যা তাদের নেতৃত্ব এবং পেশাদার দক্ষতা গড়ে তুলতে সাহায্য করবে।“

 

দিন ব্যাপী বিভিন্ন শিক্ষামূলক প্যানেল আলোচনা, ওয়ার্কশপ, ফায়ারসাইড চ্যাট এবং প্রদর্শনীর মাধ্যমে কার্নিভালে অংশগ্রহনকারী তরুণদের মাঝে সমাজে সমৃদ্ধি, ন্যায়বিচার এবং সম-অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে  সক্রিয় নাগরিক হিসেবে ভূমিকা পালন করতে আগ্রহী করে তোলে।

ইয়ুথ কার্নিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

বিওয়াইএলসির গভর্নিং বোর্ডের চেয়ারম্যান ও নুভিস্তা ফামা লিমিটেডের প্রাক্তন ব্যবস্থাপনা পরিচালক আক্তার মতিন চৌধুরী বলেন “বিওয়াইএলসি ইয়ুথ কার্নিভাল যুবকদের সক্রিয় নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করছে। তিনি আরো বলেন, যদি তরুণদের নেতৃত্ব বিকাশের কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয় তবে তারা অবশ্যই দেশের উন্নয়ন প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে আগ্রহী হবে।“

 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখোপাধ্যায় এবং এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর পরিচালক মোঃ শাহাদাত হোসেন।

 

কার্নিভালের প্রথম দিনটিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফল তরুণ এবং উদ্দোক্তারা বিভিন্ন সেশনে কথা বলেন, এতে দক্ষতা উন্নয়ন, সকলের সু-স্বাস্থ্য নিশ্চিত, নারী ও শিশুদের সহিংসতার বিরুদ্ধে লড়াই করা ,যুবসমাজকে বিভিন্ন অপরাধ থেকে দূরে রাখা এবং অসামাজিক কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

 

এছাড়াও আয়োজনটিতে জনপ্রিয় ব্যান্ডদল অর্নব এন্ড ফ্রেন্ডস, এলিটা এবং রেভলুটাসের গান পরিবেশন করে।

 

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর অংশীদারিত্বে এবং মানুষের জন্য ফাউন্ডেশান ও ইউ কে এইড এর সহযোগিতায়, বিওয়াইএলসি ইয়ুথ কার্নিভাল-২০১৯ আয়োজিত হচ্ছে। এই কার্নিভাল ২৮ ডিসেম্বর সারাদিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়ে সমাপনি অনুষ্ঠানের মাধ্য দিয়ে শেষ হবে। -বিজ্ঞপ্তি।