ঢাকা রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আগামী নিউজ ডেস্ক
১ ডিসেম্বর, ২০১৭ | ০৯:০২

না ফেরার দেশে মেয়র আনিসুল হক

tesst

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। লন্ডনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ২৩ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে সন্ধ্যায় আনিসুল হকের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে জানিয়ে সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চান তার স্ত্রী রুবানা হক।

লন্ডনে স্বামীর পাশে অবস্থানরত রুবানা হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আনিসুল হকের ফুসফুসে সংক্রমণ হয়েছে। তার অবস্থা ভালো নয়। তার জন্য দোয়া করুন।’ তখনই জানা যায়, মেয়র আনিসুল হক জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। চিকিৎসকরা প্রায় আশা ছেড়ে দিয়েছেন। পরবর্তী করণীয় নিয়ে চিকিৎসকরাই পরিবারের পরামর্শ চান। পরিবারের সদস্যরাও আশা ছেড়ে দিয়ে যে কোনো সময় চরম দুঃসংবাদ শোনার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিতে থাকেন।

এরপরই চিকিৎসকরা আনিসুল হকের কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস যন্ত্র খুলে দেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী, পুত্র ও দুই কন্যা রেখে গেছেন।

মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াও তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার আনিসুল হকের মরদেহ ঢাকায় নিয়ে আসা হবে। একই দিন বাদ আসর তাকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করার কথা রয়েছে।

প্রায় সাড়ে তিন মাস ধরে লন্ডনে চিকিৎসাধীন ছিলেন আনিসুল হক। সেখানে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল।

মেয়ের সন্তান জন্ম উপলক্ষে গত ২৯ জুলাই ব্যক্তিগত সফরে সপরিবারে লন্ডন যান আনিসুল হক। গত ৪ আগস্ট তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে লন্ডনের ন্যাশনাল নিউরোসায়েন্স হসপিটালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার মস্তিস্কের প্রদাহজনিত রোগ ‘সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিস’ শনাক্ত করেন চিকিৎসকরা। একপর্যায়ে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে গত ৩১ অক্টোবর তাকে আইসিইউ থেকে সাধারণ ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। পরে থেরাপি দেওয়ার জন্য তাকে অন্য একটি হাসপাতালে নেয়া হয়। এরইমধ্যে গত ২৬ নভেম্বর তার অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

আনিসুল হক ১৯৫২ সালের ২৭ অক্টোবর নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তবে তার শৈশবের একটি বড় সময় কাটে ফেনীর সোনাগাজীর নানার বাড়িতে।

সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র সভাপতি ছিলেন আনিসুল হক। এর আগে বিজিএমইএ’রও সভাপতি ছিলেন তিনি। ২০১৫ সালে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন নিয়ে ডিএনসিসির মেয়র নির্বাচিত হন আনিসুল হক।

সূত্র: সমকাল